প্রতিকূল পরিবেশে পদ্মাসেতুর ৩৮ তম স্প্যান বসানো হয়েছে।

প্রকাশিত: ৬:২১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২১, ২০২০

প্রদীপ কুমার সাহা– জেলা প্রতিনিধি, মুন্সীগঞ্জ।

প্রতিকূল পরিবেশে পদ্মাসেতুর ৩৮ তম স্প্যান বসানো হয়েছে।

প্রতিকূল পরিবেশের মধ্যেও পদ্মাসেতুতে ৩৮তম স্প্যান বসানো হয়েছে। শনিবার দুপুর ২ টা ৩৫ মিনিটে মাওয়া প্রান্তরে ১ ও ২ নম্বর পিলারের ওপর এ স্প্যানটি বসানো হয়।

সকাল থেকেই পদ্মার আকাশ ছিল মেঘাচ্ছন্ন। বৈরি আবহাওয়া, গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি আর ঘন কুয়াসায় সৃষ্ট প্রতিকূল পরিবেশ এড়িয়ে প্রকৌশলীরা এগিয়ে যায় ৩৮তম স্প্যান বসানোর কাজে। নির্দিষ্ট পিলারের কাছে পানির গভীরতা কম থাকায় এক সপ্তাহ আগে থেকেই ভাসমান ক্রেনটির অবস্থানের জন্য ড্রেজিং করে পর্যাপ্ত গভীরতা নিশ্চিত করা হয়।

সকাল ৯ টা ২০ মিনিটে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের স্টিল ট্রাস জেটি থেকে ৩৮তম স্প্যান নিয়ে ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই রওনা হয়। ৩০ মিনিটের মধ্যেই ভাসমান ক্রেনটি নির্ধারিত পিলারের কাছে পৌঁছে যায়। নির্দিষ্ট জায়গায় পৌঁছা মাত্রই নোঙ্গর করে ছয়টি ক্যাবলের সাহায্যে ভাসমান ক্রেনটিকে বেঁধে ফেলা হয়। তারপর চলে নির্ধারিত পিলারের ওপর স্প্যান বসানোর কার্যক্রম।

৩৭তম স্প্যান বসানোর মাত্র ৯ দিনের ব্যবধানে বসানো হলো ৩৮তম স্প্যান। আর এর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতু দৃশ্যমান হলো ৫হাজার ৭০০ মিটার। প্রকল্পের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন পদ্মা সেতুর ৩৯তম স্প্যান নভেম্বর মাসের মধ্যেই বসানো সম্ভব হবে।

পদ্মা সেতু বাংলাদেশের একটি বৃহৎ স্থাপনা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত উদ্যোগে নিজস্ব অর্থায়নে এটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। পদ্মা সেতু সচল হলে বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনৈতিক দৃশ্যপট পাল্টে যাবে, বৃদ্ধি পাবে দেশের জিডিপি ১.২ শতাংশ।