পদ্মাসেতুতে ৩৫তম স্প্যান বসানো হয়েছে

প্রকাশিত: ১০:২৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০২০

প্রদীপ কুমার সাহাঃ জেলা প্রতিনিধি, মুন্সীগঞ্জ।
পদ্মাসেতুর ৩৫তম স্প্যান মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের ৮ ও ৯ নম্বর পিলারের ওপর বসিয়ে দেয়া হয়েছে।
চলতি মাসে এ নিয়ে পদ্মাসেতুতে মোট ৪টি স্প্যান বসানো হলো। পদ্মাসেতুতে বসানো হবে আর মাত্র ৬টি
স্প্যান। ৩৫তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হলো পদ্মাসেতুর ৫২৫০ মিটার।
শনিবার ২টা ৪৫ মিনিটের দিকে ৩৫তম স্প্যান বসানোর কাজ সফলভাবে সম্পন্ন হয়। এর আগে সকালে বৃষ্টি ও
পদ্মার তীব্র সোতের কারণে স্প্যান বসানো নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন প্রকৌশলীরা। পরিবেশ পরিস্থিতি
স্বাভাবিক হলে শুরু হয় স্প্যান বসানোর কার্যক্রম। সেতু সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায় সকাল ৯টা ২৫ মিনিটের দিকে
মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া কনট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ধূসর রংঙের ৩৫তম স্প্যানটি ভাসমান
ক্রেন তিয়ান ই এর মাধ্যমে নির্ধারিত পিলারের কাছে পৌঁছে দেয়া হয়। মাওয়া কনট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে
নির্দিষ্ট পিলারের দূরত্ব ১ কিলোমিটার। এ দূরত্ব অতিক্রম করতে সময় লাগে মাত্র ৩৩ মিনিট। পরিবেশ
পরিস্থিতি অনুকূলে থাকায় ১ ঘন্টার মধ্যে ৩৫তম স্প্যানটি নির্ধারিত পিলারে বসিয়ে দেয়া সম্ভব হয়েছে। তার
পর চলে আনুসাঙ্গিক কার্যক্রম।
পূর্ব নির্ধারিত পরিকল্পনা অনুযায়ী গতকাল ৩৫তম স্প্যান বসানোর কথা ছিল। কিন্তু নির্ধারিত পিলারের
কাছে নাব্যতা সংকটের কারণে তা বসানো সম্ভব হয়নি। জরুরী ভিত্তিতে দ্রুততার সাথে ড্রেজিং সম্পন্ন করে
স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনা হয়। সেতু সংশ্লিষ্টদের মতে কয়েক দিন পূর্বে নির্ধারিত পিলারের কাছে
যেখানে নদীর গভীরতা ছিল ১৩০ ফুট কিন্তু গত ২৯ অক্টোবর সেখানে গভীরতা পাওয়া যায় মাত্র ৭ ফুট।
৩৪তম স্প্যান বসানোর সাত দিনের ব্যবধানে বসানো হল ৩৫তম স্প্যান। ৩৪তম স্প্যান বসানো হয়েছিল গত
২৫ অক্টোবর।
পদ্মাসেতুতে বসানো হবে ৪১টি স্প্যান। ৩৫তম স্প্যান বসানোর ফলে বাকী আছে ৬টি স্প্যান বসানোর
কার্যক্রম। সেতু সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায় অবশিষ্ট ৬টি স্প্যান মাওয়া কনট্রাকশন ইয়ার্ডে সুরক্ষিত রয়েছে।
পরবর্তী স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা সম্পর্কে জানা যায় আগামী ৫ নভেম্বর ৩৬তম স্প্যান, ১১ নভেম্বর
৩৭তম স্প্যান, ১৬ নভেম্বর ৩৮তম স্পান , ২৩ নভেম্বর ৩৯তম স্প্যান, ২ ডিসেম্বর ৪০তম স্প্যান এবং ১০
ডিসেম্বর ৪১তম স্প্যান বসিয়ে পদ্মাসেতু পুরোপুরি দৃশ্যমান করা হবে।