কুলাউড়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

প্রকাশিত: ১:৩৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০২০
মোঃ দুদু মিয়া তানভীর, মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ

কুলাউড়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার দানাপুর এলাকায় কুলাউড়া থানা পুলিশ মুন্নি বেগম (২১) নামে এক সন্তানের জননীর লাশ উদ্ধার করেছে।
৩ নভেম্বর ( মঙ্গলবার) রাতে কুলাউড়া থানা পুলিশ মুন্নি বেগমের  লাশ উদ্ধার করেছে।
মুন্নী উপজেলার জয়চণ্ডী ইউনিয়নের দানাপুর গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল হালিমের ছোট মেয়ে।
স্থানীয় ও গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা যায়, একই গ্রামের মৃত শফত আলীর ছেলে ইয়াদ আলীর সাথে গত এক বছর আগে মুন্নীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবিতে প্রায়ই মুন্নীকে নির্যাতন করতো ইয়াদ আলী। মুন্নি নির্যাতন থেকে বাঁচতে প্রায় সময় পিতার বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে স্বামীকে দিতেন।
দেড় মাস আগে তাদের ঘরে এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। গত দুদিন আগে ইয়াদ আলী টাকার দাবি করে স্ত্রীকে শারিরীক নির্যাতন করেন। এতে মুন্নী অসুস্থ হয়ে পড়লে মঙ্গলবার তাঁকে (মুন্নীকে) উদ্ধার করে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন।
হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক মুন্নীর অবস্থা শঙ্কটাপন্ন হওয়ায় তাঁকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে তাঁর স্বামী ইয়াদ আলী তাঁর স্ত্রীকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে পথিমধ্যে মারা যায়। পরে  লাশ নিয়ে সন্ধ্যায় সে বাড়ি ফিরে আসে। পরে ইয়াদ আলী তাঁর স্ত্রীর লাশ বাড়িতে রেখে পালিয়ে যায়।
খবর পেয়ে রাত ৯ টার দিকে কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাদেক কাওসার দস্তগীর ও কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসানসহ পুলিশ লাশের বাড়িতে যান। পরে পুলিশ লাশের সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।
এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান।