“কাফনের কাপড় পড়ে কিন্ডারগার্টন শিক্ষক-কর্মচারীরা পথে”

প্রকাশিত: ৭:৩৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০২০

আবু সামা- টাঙ্গাইলঃ

কাফনের কাপড় পড়ে কিন্ডারগার্টন শিক্ষক-কর্মচারীরা পথে।

ভাত দাও, না হলে কিন্ডারগার্টেন খুলে দাও। শরীরে কাফনের কাপড় জড়িয়ে গলায় এমন দাবির ফেসটুন ঝুলিয়ে মানববন্ধন করেছে টাঙ্গাইলে কিন্ডারগার্টেন স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা, শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ কর্মচারীবৃন্দ।

রবিবার সকাল দশটা থেকে দুই ঘণ্টা ব্যাপী টাঙ্গাইল কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন এ মানবন্ধনের আয়োজন করে। জেলার ১২টি উপজেলার বিভিন্ন কিন্ডারগার্টেনের প্রতিষ্ঠাতাসহ প্রায় একহাজার শিক্ষক-শিক্ষিকা ও কর্মচারীর এ কর্মসূচীতে অংশ নেয়।

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বন্ধ থাকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবিসহ মানববন্ধনে ৫ দফা দাবি করেন টাঙ্গাইল কিন্ডারগার্টেন প্রতিষ্ঠাতা ও শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দ।

মানববন্ধন কর্মসূচীর সমন্বয় কমিটির আহবায়ক এড. নাসির উদ্দিন আহমেদ শাহীন ও সদস্য সচিব মো. খায়রুল বাসার বিশেষ বক্তব্য দেন। বক্তব্যে বলেন, টাঙ্গাইল সহ সারাদেশে প্রায় ৬৫ হাজার কিন্ডার গার্টেন রয়েছে। কর্মরত রয়েছে প্রায় প্রায় ৮ লাখ শিক্ষক-কর্মচারী। শিক্ষার্থী রয়েছে প্রায় ১ কোটি। এসব প্রতিষ্ঠানের জন্য সরকারের কোন অর্থ ব্যয় হচ্ছে না। বরং ৮ লাখ শিক্ষিত বেকারদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হয়েছে। ৬৫ হাজার বাড়ির মালিক কিন্ডারগার্টেন থেকে বাড়ি ভাড়া পাচ্ছেন। কিন্ডার গার্টেন সেক্টর দেশে উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থা, কর্মসংস্থান ও উন্নয়নে এতোবড় অবদানের পরও করোনাকালের দুর্দিনে তাদের পাশে কেউ নেই।

এসময় তারা কিন্ডাগার্টেন সমুহের সংকট ও দুর্দশা নিরসনে দেশের সকল কিন্ডারগার্টেন খুলে দেওয়ার পাশাপাশি সরকারি সহযোগিতার দাবি জানান।বক্তারা আরও বলেন, গত ৩০এপ্রিল টাঙ্গাইল কিন্ডারগার্টেন এসাসিয়েশন প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন। এরপর জেলার ৭১৩টি কিন্ডারগার্টেনের ৭৭৫৯ জন শিক্ষক-কর্মচারীর তালিকাসহ স্ব-স্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট সরকারি অনুদান চেয়ে আবেদন করেন। এরপর ৬ জুলাই উক্ত আবেদনের কপিসহ কিন্ডাগার্টেনের সমস্যা ও সংকট নিরসনে ৫ দফা দাবিতে জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেন।

কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন সহযোগিতা পাননি এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় এসব প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্তরা হাঁপিয়ে উঠেছেন।স্বাস্থবিধি অনুসরণ করে অনতিবিলম্বে কিন্ডারগার্টেন খুলে দেওয়ার দাবি জানান। অন্যথায় কিন্ডারগার্টেনের বাড়িভাড়া পরিশোধের জন্য সরকারি সহায়তা, প্রতিষ্ঠানের বিদ্যুৎ বিল মওকুফ করাসহ কিন্ডারগার্টেন খুলে দেওয়ার পূর্ব পর্যন্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের মাসিক অনুদানের জোর দাবি করেন।

মানববন্ধনে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, যুগ্ন আহবায়ক হাসান হাফিজুর রহমান, যুগ্ন আহবায়ক আবীর আহমেদ, দেলদূয়ার কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের সভাপতি আহসানুল হক সুমন, সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, কালিহাতী উপজেলা কমিটির সভাপতি সোবহান তালুকদার শুভ, সখীপুর উপজেলা কমিটির সভাপতি শাহীন আল মামুন, বাসাইল উপজেলা কমিটির সভাপতি মো. শফিকুল ইসলাম লোটাস, নাগপুর উপজেলা কমিটির সভাপতি মীর ওবায়েত হোসেন, মির্জাপুর উপজেলা কমিটির সভাপতি মো. ইসহাক আলী, ঘাটাইল উপজেলা কমিটির সভাপতি এসএম আব্দুল লতিফ, ধনবাড়ী উপজেলা কমিটির সভাপতি মো. দেলোয়ার হোসেন, গোপালপুর উপজেলা কমিটির সভাপতি মো. বেলাল উদ্দিন আহমেদ, ভূঞাপর উপজেলা কমিটির সভাপতি মো. নুরুল রহমান সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিম প্রমূখ।