আপনার শিশু কেন খেতে চায় না ?

প্রকাশিত: ১০:০২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১১, ২০২০

শিশুটি খেলাধুলা  ছোটাছুটি  সবাই করে, আপাতদৃষ্টিতে  সুস্থ  কিন্তু একদম খায় না বলে চলে,   সারাদিনে  পছন্দের  একটা  বা  দুটো  আইটেমই শুধু খেতে চাই । খাবারের  বড্ড  বেশি  বাছবিচার । মায়ের অবস্থা কাহিল। এ ধরনের  শিশুকে বলা হয় পিকিইটার। 

পিতার বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এসব শিশুর- মা-বাবা অতি উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। তাকে জোর করে খাওয়ানোর চেষ্টা করেন । শিশু স্বাভাবিক খাবার খায়  না কিন্তু  ক্রেকারস ,চিপস, চুইংগাম, চিকেেনফ্রাই ,চকোলেট -এসবে বেশ আসক্ত আছে।   কিন্তু দৈনন্দিন ভাত তরকারি দেখলেই পালিয়ে বেড়ায় । আজকের যুগে এরকম শিশুর সংখ্যা কম নয়।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এ ধরনের শিশু বয়স এক থেকে তিন বছরের মধ্যে বা কিছু বেশি। মা-বাবার একমাত্র সন্তান বা দ্বিতীয় সন্তান।তারা সারাদিন বেশ তৎপর প্রকৃতির ।এ সব শিশু স্বাভাবিক ভাবে ঘুমায়। এদের শরীরে অসুস্থতা কোন চিহ্ন নেই । শিশুর বয়স অনুযায়ী স্বাভাবিক বিকাশ হচ্ছে হূৎস্পন্দন, শ্বাস-প্রশ্বাস, রক্তচাপ, তাপমাত্রা স্বাভাবিক।গ্রোথ চার্ট  মিলিয়ে তার ওজন উচ্চতা মাথার বেড় উচ্চতা ওজনের ভারসাম্য সূচক বিএমআই  মানও স্বাভাবিক। শিশুর রক্তশূন্যতা বা পানিশূন্যতা নেই। এর অর্থ হলো শিশু সম্পন্ন সুস্থ স্বাভাবিক: তার  বৃদ্ধি ও বিকাশ যথাযথ আছে কিন্তু তারপরেও মা-বাবার অভিযোগ বাচ্চা একদম খায় না এখন কি করা?

* মাকে শিশুর খাবার ও খাওয়ানোর পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে হবে।

* শিশুকে নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার দরকার নেই।

* প্রতিটি শক্ত খাবার শিশুর জন্য নতুন। তাই তার রং গঠন স্বাদ এসব বুঝতে তাকে সময় দিতে হবে।

* ঘরে তৈরি পারিবারিক খাবার পছন্দ অনুযায়ী খেতে দিন। উৎসাহ দেন, একসাথে সবার সাথে খেতে দিন, যখন তখন ড্রিমস ,চিপস ,জুস এসব খেয়ে পেট ভরিয়ে খেলার সুযোগ দেবেন না।

*শিশুর  পছন্দ বুঝতে চেষ্টা করুন। কোন শিশু হয়তো মিষ্টি খাবার পছন্দ করে কেউ নোনতা। রুচি অনুযায়ী খাবার প্রস্তুত করুন।